1. sparkleit.bd@gmail.com : K. A. Rahim Sablu : K. A. Rahim Sablu
  2. diponnews76@gmail.com : Debabrata Dipon : Debabrata Dipon
  3. admin@banglanews24ny.com : Mahmudur : Mahmudur Rahman
  4. mahmudbx@gmail.com : Monwar Chaudhury : Monwar Chaudhury
অর্থ পাচার হচ্ছে, তথ্য চাইলে দেয় না বিদেশিরা: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
সোমবার, ০৮ অগাস্ট ২০২২, ০৬:৪০ অপরাহ্ন




অর্থ পাচার হচ্ছে, তথ্য চাইলে দেয় না বিদেশিরা: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

বাংলানিউজএনওয়াই ডেস্ক:
    আপডেট : ২৬ জুলাই ২০২২, ১১:০১:০১ অপরাহ্ন

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেন বলেছেন, বিদেশি নানা সংস্থা দেশের বিরুদ্ধে ঢালাও দুর্নীতির অভিযোগ তুললেও অর্থপাচারের কোনো তথ্য বিদেশি ব্যাংকগুলোর কাছ থেকে পাওয়া যায় না। এছাড়া, বিদেশিদের পরামর্শ শুনেই লাফালাফি না করে ভেবে দেখার আত্মবিশ্বাস পদ্মা সেতুর মাধ্যমে জন্মেছে বলেও জানান তিনি।  এদিকে, ১২ বছরে পদ্মা সেতু প্রকল্পের ব্যয় বাড়েনি বলে জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম।

চলতি বছরে সুইজারল্যান্ডের কেন্দ্রীয় বার্ষিক প্রতিবেদনে বলা হয়, এক বছরের ব্যবধানেই বাংলাদেশিরা ৩ হাজার কোটি টাকা জমা করেছেন। অর্থপাচার নিয়ে এমন অভিযোগের বিষয়ে মুখ খুললেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। মঙ্গলবার (২৬ জুলাই) রাজধানীর ফরেন সার্ভিস একাডেমিতে পদ্মা সেতু নিয়ে বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে তিনি বিদেশিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে বলেন, অর্থপাচারের তথ্য ব্যাংকগুলো দেয় না। বিদেশিদের পরামর্শ না শুনে নিজেদের বোধ বুদ্ধির ওপর নির্ভর করা উচিত বলেও মন্তব্য করেন মন্ত্রী।

আরও পড়ুন: অর্থ পাচারকারী সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী হলে ব্যবস্থা নেবে দুদকতিনি বলেন, বিদেশিরা পরামর্শ দিতে পারেন কিন্তু তাদের পরামর্শ সব সময় সঠিক নয়। তারা পরামর্শ দিলেই যে আমরা লাফালাফি করব, আমাদের জ্ঞানবুদ্ধি জলাঞ্জলি দেব সেই মানসিকতা পরিহার করার সময় এসেছে। আমাদের বহু টাকা বিদেশে পাচার হচ্ছে, তারপর যদি বলি এই লোকগুলো কে, কারা টাকা পাচার করছেন, তাদের তথ্য দাও, তখন তারা বলবে প্রাইভেসি অ্যাক্টে আমরা সেটি দিতে পারব না। আপনারা জানতে পারবেন সুইস ব্যাংকে টাকা নাকি অনেক বাড়ছে। ঠিক আছে, কে ওই টাকা রেখেছে, সেইখানে তারা কিছু বলবে না।পদ্মা সেতু প্রকল্পে বিদেশি অর্থায়ন তুলে নেয়া দেশের জন্য সাপে-বর হয়েছে বলে মন্তব্য করেন অতিথিরা।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, ২০১২ সালে পদ্মাসেতু প্রকল্পে বরাদ্দ ছিল ১২ হাজার ১০০ কোটি টাকা, গত পরশুদিনও ফাইল দেখেছি সেই টাকা এখন পর্যন্ত বাড়েনি। পদ্মার সেতুর জটিল কারিগরি ও প্রকৌশলের কথা উল্লেখ করে বক্তারা জানান, বাঙালির নিজের ওপরে বিশ্বাস দৃঢ় হয়েছে।

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, পদ্মা সেতু শুধু সেতু নয়, আমাদের জন্য নদী পারাপারের জন্য সেতু নয়, এটা আমাদের অধিক আত্মবিশ্বাস। পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম বলেন, শুধুমাত্র বাংলাদেশের বিশেষজ্ঞদের সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে এবং কাজকে এগিয়ে নিতে হয়েছে। চ্যালেঞ্জের পাশাপাশি যে সুযোগ দিয়েছিল, সেটি তারা গ্রহণ করেছেন এবং সফলভাবেই করেছেন। ড. আব্দুল মোমেনের সম্পাদনায় ‘আমাদের অর্থে আমাদের সেতু’ বইটি উৎসর্গ করা হয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে।




খবরটি এখনই ছড়িয়ে দিন

এই বিভাগের আরো সংবাদ







Copyright © Bangla News 24 NY. 2020