1. sparkleit.bd@gmail.com : K. A. Rahim Sablu : K. A. Rahim Sablu
  2. diponnews76@gmail.com : Debabrata Dipon : Debabrata Dipon
  3. admin@banglanews24ny.com : Mahmudur : Mahmudur Rahman
  4. mahmudbx@gmail.com : Monwar Chaudhury : Monwar Chaudhury
খেলা দেখতে গিয়ে ‘হারিয়ে যাওয়ার’ ১১ বছর পর ফিরলেন ঘরে
বুধবার, ১০ অগাস্ট ২০২২, ০১:২৩ অপরাহ্ন




খেলা দেখতে গিয়ে ‘হারিয়ে যাওয়ার’ ১১ বছর পর ফিরলেন ঘরে

বাংলানিউজএনওয়াই ডেস্ক
    আপডেট : ০৪ জুলাই ২০২২, ৮:২৫:৪৯ অপরাহ্ন

মেলায় হারিয়ে যাওয়ার’ গল্প কমবেশি সবার শোনা। তবে খেলা দেখতে গিয়ে হারিয়ে যাওয়ার ঘটনা বিরল। সুইস ভদ্রলোক রলফ ব্যান্টলের সঙ্গে এমনটাই ঘটেছে। প্রিয় ক্লাব বাসেলের খেলা দেখতে মিলানের সান সিরো স্টেডিয়ামে গিয়ে হারিয়ে যাওয়ার এক দশকেরও বেশি সময় পর নিজ দেশ সুইজারল্যান্ডে ফিরেছেন তিনি। ২০০৪ সালে উয়েফা চাম্পিয়ন্স লিগের বাছাইপর্বে বাসেলের বিপক্ষে ইন্টার মিলানের খেলা দেখতে সান সিরোতে গিয়েছিলেন ব্যান্টল। ম্যাচে তার দল বাসেল হেরে যায় ৪-১ গোলে। ম্যাচ শেষে টয়লেটে গিয়েছিলেন তিনি, তবে তখনই ঘটে অঘটন। টয়লেট থেকে বের হয়ে আর নিজের সঙ্গী-সাথীদের খুঁজে পাননি তিনি।

নিজ দেশ সুইজারল্যান্ডে ‘তেমন কোনো গুরুত্বপূর্ণ কাজ’ থাকায় মিলানেই থেকে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন তিনি। ২০০৪ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত এক দশক ইতালির এই শহরেই থেকেছেন তিনি। হারিয়ে যাওয়ার সময় তার পকেটে ছিল মোটে ২০ ইউরো। সুইস ম্যাগাজিন শোয়েজ এম সনতাগের সঙ্গে আলাপচারিতায় ২০১৫ সালে মিলানে থেকে যাওয়ার আদ্যোপান্ত জানিয়েছেন ব্যান্টল, ‘আমি হঠাৎ একটা ভিন্ন পরিবেশে এসে পড়ি। আমার পকেটে ছিল ২০ ইউরো আর সঙ্গে কোনো মুঠোফোনও ছিল না। তাই আমি মিলানে ঘুরতে থাকি।’ ‘অনেকে আমাকে খাবার এবং সিগারেট দিয়ে সাহায্য করেছে। একজন ছাত্র আমাকে স্লিপিং ব্যাগ দিয়েছিল।’

খেলা দেখতে ইতালিতে আসার আগে মাদকাসক্ত পুনর্বাসন কেন্দ্রে থাকতেন ব্যান্টল। নিকটাত্মীয় তেমন কেউ না থাকায় তার খোঁজও করেননি কেউ। মিলানে থাকার সময়টায় সপ্তাহে একবার গণশৌচাগারে গোসল করতেন তিনি। এছাড়া দিনের একটা বড় সময় মিলানের গণগ্রন্থাগারে কাটাতেন ব্যান্টল। মিলানে এই উদ্বাস্তু এবং ভবঘুরে জীবন উপভোগ করেছেন জানিয়ে ব্যান্টল বলেন, ‘সত্যি বলতে আমার বাড়িতে যাওয়ার কোনো কারণ ছিল না। আমি মিলানের স্বাধীনতা উপভোগ করেছি।’ ২০১৫ সালে রানের হাড় ভেঙে যাওয়ার পর সুইজারল্যান্ডে ফেরার সিদ্ধান্ত নেন ব্যান্টল। অসুস্থ হওয়ার পর চিকিৎসার জন্য ইতালির হাসপাতালে গেলে সেখানকার দায়িত্বশীলরা বুঝতে পারেন তার কোনো চিকিৎসা বীমা নেই এবং তিনি ইতালিয়ানও নন। তার আসল পরিচয় জানার পর মিলানের সুইস কনস্যুলেটের সঙ্গে যোগাযোগ করে ব্যান্টলকে সুইজারল্যান্ডে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হয়।




খবরটি এখনই ছড়িয়ে দিন

এই বিভাগের আরো সংবাদ







Copyright © Bangla News 24 NY. 2020