1. sparkleit.bd@gmail.com : K. A. Rahim Sablu : K. A. Rahim Sablu
  2. diponnews76@gmail.com : Debabrata Dipon : Debabrata Dipon
  3. admin@banglanews24ny.com : Mahmudur : Mahmudur Rahman
  4. mahmudbx@gmail.com : Monwar Chaudhury : Monwar Chaudhury
গতিময় ফুটবলে অস্ট্রেলিয়াকে উড়িয়ে দিল ফ্রান্স
রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ০৪:০৭ পূর্বাহ্ন




গতিময় ফুটবলে অস্ট্রেলিয়াকে উড়িয়ে দিল ফ্রান্স

স্পোর্টস ডেস্ক:
    আপডেট : ২৩ নভেম্বর ২০২২, ১২:২৪:৩৮ অপরাহ্ন

প্রথমার্ধে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে জমে উঠেছিল অস্ট্রেলিয়া-ফ্রান্সের ম্যাচ। তবে গতিময় ফুটবলে অস্ট্রেলিয়াকে উড়িয়ে দিয়ে ৪-১ গোলের বড় জয় পেয়েছে ফ্রান্স। যদিও ম্যাচের শুরুতেই ফ্রান্সের জালে গোল দিয়ে এগিয়ে যায় অস্ট্রেলিয়া। তারপর ২৫ মিনিটের মাথায় গোল করে সমতা ফেরান ফ্রান্সের ১৪ নম্বর জার্সিধারী রাবোয়িত।

শুরু থেকে ফ্রান্স মাঝ মাঠ দখল করে খেলতে থাকলেও স্রোতের বিপরীতে গিয়ে ৯ মিনিটেই গোল খেয়ে বসে তারা। ডান পাশ দিয়ে লেকির বাড়ানো ক্রসে গোল করে অস্ট্রেলিয়াকে স্বপ্নের মত শুরু এনে দেন ২৩ নম্বর জার্সিধারী গুডউইন।

ইনজুরিতে পরে লুকাস হার্নান্দেজ মাঠ ছাড়লে তার বদলি হিসেবে নামেন তার ভাই থিও হার্নান্দেজ। গোল খেয়েই যেন আগ্রাসী ভূমিকায় নিজেদের জাত চেনায় ফ্রান্স। মুহুর্মুহু আক্রমণে অজি রক্ষণভাগে ঝড় তুলে এমবাপ্পে, গ্রিজম্যান, দেম্বেলেরা।

২৭ মিনিটে দুর্দান্ত এক পরিকল্পিত আক্রমণ থেকে গোল করে দলকে সমতায় ফেরান রাবিও। থিও হার্নান্দেজের ক্রসে হেড দিয়ে গোল করেন এই জুভেন্টাস মিডফিল্ডার।

প্রথম গোলের ঠিক ৫ মিনিট পর আবারো গোল করে ফ্রান্স। এবার গোলের খাতায় নাম লেখান অলিভার জিরু। সকারুদের ডিফেন্সের ভুলে ডিবক্সে বল পান রাবিও। তার বাড়ানো ক্রসে সহজতম গোল করে ফ্রান্সের জার্সিতে ৫০তম গোল উদযাপন করেন তিনি। ইউরোপিয়ানদের পক্ষে ১৯৯৪ সালের পর সবচেয়ে বেশি বয়সী গোলদাতা বনে যান তিনি।

ম্যাচ শেষের আগে ৪৫ মিনিটে গ্রিজম্যানের ক্রসে গোলরক্ষককে একা পেয়েও বল গোলবারের উপর দিয়ে মারেন এমবাপ্পে। নিশ্চিত সুযোগ মিস করেন এই পিএসজি তারকা। এর ঠিক ২ মিনিট পর ফ্রেঞ্চ দুর্গে ভয় ধরিয়ে দেয় সকারুরা। মিডফিল্ডার পাউলির হেড ফ্রান্সের গোলবারে লেগে বাইরে চলে গেলে বিরতির আগে সমতায় ফিরতে ব্যর্থ হয় অস্ট্রেলিয়া। ফলে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা।

বিরতির পর অবশ্য ম্যাচের পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ ছিল এমবাপ্পেদের। অস্ট্রেলিয়াকে চেপে ধরে একের পর আক্রমণে গিয়ে ব্যবধান বাড়ানোর চেষ্টা করতে থাকে দেশমের দল। অস্ট্রেলিয়াকে কোণঠাসা করে সুযোগও কাজে লাগানোর চেষ্টা করে তারা। ৬৭ মিনিটে গ্রিজমানের শটে গোল লাইন থেকে বল ফিরে আসলে নিরাশ হতে হয় ফ্রান্সকে। তবে একটু পর উসমান দেম্বেলের ক্রসে দুর্দান্ত এক হেডে লক্ষ্যভেদ করে জানুব স্টেডিয়ামকে মাতিয়ে তুলেন এমবাপ্পে।

৭১ মিনিটে এমবাপ্পের সহায়তায় নিজের দ্বিতীয় গোল করেন জিরু। চার গোলে এগিয়ে থেকে তখন ফ্রান্সের জয় অনেকটাই নিশ্চিত। ব্যবধান অবশ্য আরও বাড়ানোর সুযোগ পেয়েছিল ফ্রান্স। তবে সেগুলো আর কাজে আসেনি।

তবে শুরুর দিকে গোল খেয়ে উল্টো ঘুরে দাঁড়ায় ফ্রান্স। দুর্দান্ত খেলে ৪-১ গোলের দারুণ এক জয় উপহার দেয় দেশকে। দলের জয়ে জোড়া গোল করেছেন অলিভিয়ের জিরু। একটি করে গোল করেছেন আদ্রেঁয়া রাবিও ও কিলিয়ান এমবাপ্পে।

একটি গোল এবং একটি অ্যাসিস্ট করলেও ম্যাচে জাদু দেখিয়েছেন এমবাপ্পে। দলের দ্বিতীয় গোলের মূল কারিগর অবশ্য ছিলেন এই পিএসজি তারকা।

ম্যাচজুড়ে গতির ঝলক ছিল চোখে পড়ার মতো। কাছাকাছি গিয়ে একাধিক সুযোগ হাতছাড়া না করলে গোল সংখ্যা আরও বাড়তেও পারতো ফ্রান্সের।

চোটের পড়ে করিম বেনজেমার মতো তারকা নেই। নেই এনগালো কান্তে, পল পগবা, ক্রিস্টোফার এনকুকু এবং প্রেসনেল কিমপেম্বের মতো বিশ্বমানের ফুটবলাররাও। তবে সে দুঃখ পেছনে ফেলে দেখিয়ে দিয়েছে দেশমের শিষ্যরা।

চার ডিফেন্ডার নিয়ে ৪-২-৩-১ ফরমেশনে দল সাজিয়েছিলেন দিদিয়ের দেশম। ম্যাচের প্রথম মিনিটেই লক্ষ্যটা পরিস্কার করে দেয় ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা। শুরুতেই গতিময় আক্রমণে অস্ট্রেলিয়ার রক্ষণ কাঁপিয়ে দেয়ার চেষ্টা করে তারা।

কাতারের আল জানুব স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় রাত ১টায় মাঠে নামে দুবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স ও ওশেনিয়া মহাদেশের একমাত্র কাণ্ডারি অস্ট্রেলিয়া। যদিও অস্ট্রেলিয়া বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব খেলে এশিয়া মহাদেশে। কিন্তু তাদের খাটো করে দেখার সুযোগ ছিল না।

ফ্রান্স একাদশ
(ফরমেশন ৪-২-৩-১) হুগো লোরিস, বেঞ্জামিন পাভার্ড, ইব্রাহিমা কোনাটে, ডায়ট উপামেকানো, লুকাস হার্নান্দেজ, আদ্রিয়েন রাবোয়িত, অরেলিয়েন টিচুয়ামেনি, ওসমানে ডেম্বেলে, অলিভার গিরুদ, আন্দোনিও গ্রিজম্যান, কিলিয়ান এমবাপ্পে

কোচ: দিদিয়ের দেশম

অস্ট্রেলিয়া একাদশ

(ফরমেশন ৪-১-৪-১) ম্যাট রায়ান, ন্যাথ্যানিয়ের অ্যাটকিনসন, কেই রোলেস, হ্যারি সুটার, আজিজ বেহিচ, রিলে ম্যাকগ্রি, অ্যারন মুই, জ্যাকসন ইরভিন, ক্রেইগ গুডইউন, ম্যাথু লেকি, মিচেল ডিউক।

কোচ: গ্রাহাম জেমস আর্নলড




খবরটি এখনই ছড়িয়ে দিন

এই বিভাগের আরো সংবাদ







Copyright © Bangla News 24 NY. 2020