1. sparkleit.bd@gmail.com : K. A. Rahim Sablu : K. A. Rahim Sablu
  2. diponnews76@gmail.com : Debabrata Dipon : Debabrata Dipon
  3. admin@banglanews24ny.com : Mahmudur : Mahmudur Rahman
  4. mahmudbx@gmail.com : Monwar Chaudhury : Monwar Chaudhury
জাপানের নতুন প্রধানমন্ত্রী সুগা’র অপ্রত্যাশিত উত্থান
বৃহস্পতিবার, ১৮ অগাস্ট ২০২২, ০৭:৩৫ অপরাহ্ন




জাপানের নতুন প্রধানমন্ত্রী সুগা’র অপ্রত্যাশিত উত্থান

অনলাইন ডেস্ক:
    আপডেট : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৯:৪১:০৮ পূর্বাহ্ন

জাপানে দীর্ঘ সময়ের জন্য প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্বে ছিলেন সিনজো আবে। একমাস আগেও কেউ কল্পনা করেনি স্বপ্নের টোকিও অলিম্পিক গেমসের আগেই তিনি বিদায় নিবেন। তাছাড়া খুব কম সংখ্যক মানুষই ধারণা করেছিল ইয়োশিহিদে সুগা হতে যাচ্ছেন আবের উত্তরসুরি। ৭১ বছরের সুগা সব সময় আবের সকল সমস্যার সমাধানের কাজ করেছেন। বুধবার সংসদে নিম্নকক্ষের ভোটে বিপুল ব্যবধানে জয়ী হওয়ায় দেশটির নতুন প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন ইয়োশিহিদে সুগা। খবর বিবিসিরি।

সোমবার সাবেক প্রধানমন্ত্রী শিনজো অ্যাবের উত্তরাধিকারী নির্ধারণ করার জন্য দলটিতে অভ্যন্তরীণ ভোট অনুষ্ঠিত হয়। যেখানে ৫৩৪ ভোটের মধ্যে সুগা পান ৩৭৭ ভোট। নির্বাচনে তিনি জাপানের সাবেক প্রতিরক্ষা মন্ত্রী শিগেরু ইশিবা এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রী ফুমিও কিশিদার সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। ক্ষমতাসীন লিবারেল ডেমোক্র্যাটিক পার্টির অভ্যন্তরীণ ভোটে জয়ী হওয়ায় দেশটির প্রধানমন্ত্রী হওয়া অনেকটাই নিশ্চিত ছিলেন সুগা।

২০১২ সালে শিনজো আবে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর তার ঘনিষ্ঠ হয়ে ওঠেন সুগা। আবের গোটা শাসনামলেই মন্ত্রিপরিষদ সচিবের দায়িত্ব সামলেছেন। এসময় তার ক্ষমতাকে অনেকটা চিফ অব স্টাফ ও প্রেস সচিবের সমন্বয় বলা চলে।

তবে ক্ষমতায় চূড়ায় পৌঁছানোর এ সুদীর্ঘ যাত্রাপথ মোটেও সুগম ছিল না ইয়োশিহিদে সুগার জন্য। জাপানের আকিতা অঞ্চলের প্রত্যন্ত এলাকায় এক কৃষক পরিবারে জন্ম নিয়েছেন তিনি। বাবা ছিলেন স্ট্রবেরি চাষি। হাইস্কুল পার করেই রাজধানী টোকিওতে পাড়ি জমান ইয়োশিহিদে সুগা। সেখানে পড়াশোনার খরচ জোগাতে কার্ডবোর্ড ফ্যাক্টরি ও মাছের বাজারে কাজ করেছেন তিনি। গ্রাজুয়েশন শেষে চাকরি জীবনে প্রবেশ করেন সুগা, তবে সেখানে মন টেকেনি। বিশ্বকে বদলে দেয়ার লক্ষ্য নিয়ে পরে যোগ দেন রাজনীতিতে।

আশির দশকের শেষের দিকে ইয়োকোহামার সিটি কাউন্সিল নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছিলেন ইয়োশিহিদে সুগা। সেসময় রাজনৈতিক যোগাযোগ বা অভিজ্ঞতা কোনোটাই খুব বেশি ছিল না তার। শুধু ছিল দৃঢ় ইচ্ছাশক্তি ও কঠোর পরিশ্রমের মনোবল। স্বশরীরে বাড়ি বাড়ি গিয়ে নির্বাচনী প্রচারণা মুরু করেন তিনি। এভাবে দৈনিক ৩০০ বাড়ি করে মোট ৩০ হাজার বাড়ির দরজায় হাজির হয়েছিলেন সুগা।

সুগা নিজেকে একজন ভালো মানুষ মনে করেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে সুগা বলেন, যারা যথাযথভাবে তাদের কাজ করে তাদের প্রতি আমি খুবই ভালো একজন মানুষ।




খবরটি এখনই ছড়িয়ে দিন

এই বিভাগের আরো সংবাদ







Copyright © Bangla News 24 NY. 2020