1. sparkleit.bd@gmail.com : K. A. Rahim Sablu : K. A. Rahim Sablu
  2. diponnews76@gmail.com : Debabrata Dipon : Debabrata Dipon
  3. admin@banglanews24ny.com : Mahmudur : Mahmudur Rahman
  4. mahmudbx@gmail.com : Monwar Chaudhury : Monwar Chaudhury
নেপাল-গোপাল কাণ্ড: তদন্ত কমিটির সামনে হাজির হবেন প্রশান্ত কুমার
রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ০৪:৪৮ পূর্বাহ্ন




নেপাল-গোপাল কাণ্ড: তদন্ত কমিটির সামনে হাজির হবেন প্রশান্ত কুমার

বাংলানিউজএনওয়াই ডেস্ক::
    আপডেট : ১০ নভেম্বর ২০২২, ১:৩০:৪৪ অপরাহ্ন

চলতি বছর ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের এইচএসসি পরীক্ষায় বাংলা প্রথম পত্রের পরীক্ষায় বিতর্কিত প্রশ্নপত্রের প্রণয়নের ঘটনায় যশোর শিক্ষা বোর্ডের গঠিত তিনি সদস্যের তদন্ত কমিটি তাদের তদন্ত শুরু করেছে। ইতোমধ্যে কমিটি প্রশ্ন প্রণয়নকারী ও মডারেটরদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে সক্ষম হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১০ নভেম্বর) তদন্ত কমিটির সামনে হাজির হচ্ছেন প্রশ্ন প্রণযনকারী প্রশান্ত কুমার পাল। সেখানে তার ভুল স্বীকার করবেন বলেও জানিয়েছেন তিনি। এ ঘটনায় নিজে অনুতপ্ত বলে দাবি করেন প্রশ্ন প্রণেতা। এদিকে প্রশান্ত কুমার হাজির হওয়ার বিষয়টি স্বীকার করলেও তদন্ত কমিটি প্রধান বিষয়টি এড়িয়ে গেছেন।

আলোচিত প্রশ্ন প্রণয়নকারী প্রশান্ত কুমার পাল ঝিনাইদহের মহেশপুরের ডা. সাইফুল ইসলাম ডিগ্রি কলেজের সহকারী অধ্যাপক। সূত্র জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টায় তাকে তদন্ত কমিটির কাছে জবানবন্দি দিতে হবে। তবে কমিটির প্রধান কলেজ পরিদর্শক এম রব্বানী বলেছেন, ‘তদন্ত প্রক্রিয়া সম্পর্কে বলা যাবে না। এটা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ও স্পর্শকাতর বিষয়। তাই অত্যন্ত সতর্কভাবে ও গোপনীয়তার সাথে এ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার কাজ চলছে।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের মাত্র পাঁচ কার্য দিবস সময় দেওয়া হয়েছে। আমরা কাজ চালিয়ে যাচ্ছি। ইতোমধ্যে প্রশান্ত কুমার পালসহ মডারেটরদের সঙ্গে যোগাযোগ হয়েছে। তাদের বক্তব্য ছাড়া আমরা রিপোর্ট জমা দেব না।’

শিক্ষক প্রশান্ত কুমার পালের সঙ্গে বুধবার (৯ নভেম্বর) রাত সাড়ে ১০টার দিকে কথা বলে জানা গেছে, তিনি বৃহস্পতিবারে তদন্ত কমিটির কাছে হাজির হবেন। সকাল ১০টায় তিনি যশোর বোর্ডে হাজির হয়ে প্রশ্ন করার বিষয়ে লিখিত বক্তব্য দেবেন। সেখানে তার যে ত্রুটি আছে তা স্বীকার করবেন।

তার কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল, এমন বিষয় তিনি কীভাবে লিখলেন? তখন তিনি জানান, অবচেতন মনে হয়তো এটা হয়েছে। এ প্রসঙ্গে তিনি এ প্রতিবেদকে বলেন, “আমি এম এম কলেজে পড়েছি। সেখানে সাংস্কৃতিক সংগঠন ‘উচ্চারণের’ সাথে জড়িত ছিলাম। চিরকাল অসাম্প্রদায়িক মানুষ আমি। কবিতা লিখি। বেশ কয়েকটি বই প্রকাশিত হয়েছে। আরও দুটি বই প্রকাশের অপেক্ষায়। আমি সচেতনভাবে সাম্প্রদায়িক বিষয় লালন করি না, অথচ এমন ঘটনা ঘটল।’

তার কোনো খারাপ মতলব ছিল না জানিয়ে তিনি নিজেও এটাকে দুঃখজনক বলেছেন। সেইসঙ্গে সাথে তিনি এ ঘটনার জন্যে অনুতপ্ত বলেও জানান। এ প্রসঙ্গে তিনি নিজে এর দায়ভার নিলেও মডারেটরদের কাজ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। তিনি বলেন, ‘আমি সচেতন বা অবচেতনে ভুল করলেও সেটা দেখার জন্যে মডারেটররা ছিলেন। আমি ভুল করে লিখে দিলাম। কিন্তু মডারেটররা কি করলেন? তারা কেন কারেকশন করলেন না?’

উল্লেখ্য, এই প্রশ্নের জন্যে মডারেটর ছিলেন- নড়াইলের সরকারি ভিক্টোরিয়া কলেজের সহযোগী অধ্যাপক সৈয়দ তাজউদ্দিন শাওন, সাতক্ষীরা সরকারি মহিলা কলেজের সহযোগী অধ্যাপক মো. শফিকুর রহমান, নড়াইলের মির্জাপুর ইউনাইটেড কলেজের সহকারী অধ্যাপক শ্যামল কুমার ঘোষ ও কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা আদর্শ কলেজের সহকারী অধ্যাপক মো. রেজাউল করিম।




খবরটি এখনই ছড়িয়ে দিন

এই বিভাগের আরো সংবাদ







Copyright © Bangla News 24 NY. 2020