1. sparkleit.bd@gmail.com : K. A. Rahim Sablu : K. A. Rahim Sablu
  2. diponnews76@gmail.com : Debabrata Dipon : Debabrata Dipon
  3. admin@banglanews24ny.com : Mahmudur : Mahmudur Rahman
  4. mahmudbx@gmail.com : Monwar Chaudhury : Monwar Chaudhury
যুক্তরাষ্ট্রে দাবানলে মৃতের সংখ্যা বাড়ছে
সোমবার, ০৮ অগাস্ট ২০২২, ০৮:০৮ অপরাহ্ন




যুক্তরাষ্ট্রে দাবানলে মৃতের সংখ্যা বাড়ছে

অনলাইন ডেস্ক:
    আপডেট : ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৯:৪৯:২৪ পূর্বাহ্ন

যুক্তরাষ্ট্রের পশ্চিম উপকূলীয় অঙ্গরাজ্যগুলোতে ছড়িয়ে পড়া দাবানলে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩৫ জনে দাঁড়িয়েছে। এখনও নিখোঁজ রয়েছে আরও অনেকে। সংবাদমাধ্যম এনবিসি নিউজ জানিয়েছে, কেবল ওরিগনেই কয়েক ডজন মানুষ নিখোঁজ রয়েছে। তাদের খুঁজে বের করতে এরইমধ্যে প্রশিক্ষিত কুকুরসহ উদ্ধারকর্মীদের নামানো হয়েছে।

ওরিগনের জরুরি ব্যবস্থাপনা দফতর (ওইএম) জানিয়েছে, স্থানীয় সময় রবিবার সকাল পর্যন্ত রাজ্যে ৩৪টি বড় আকারের দাবানল সক্রিয় ছিল। এখন পর্যন্ত মৃতদের সিংহভাগই ওরিগনের বাসিন্দা। রাজ্যের একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, সেখানে আরও প্রাণহানির আশঙ্কা করা হচ্ছে।

তিন সপ্তাহ ধরে ভয়াবহ দাবানলে পুড়ছে ক্যালিফোর্নিয়া, ওরিগন ও ওয়াশিংটন রাজ্যের বিস্তৃত এলাকা। প্রবল বাতাসের কারণে দাবানল আরও তীব্রতর হয়ে ছড়িয়ে পড়ছে। হাজার হাজার ঘরবাড়ি পুড়ে ছাই হয়ে গেছে, পুড়েছে মিলিয়ন একর এলাকা। আগুনের তীব্রতায় লাখ লাখ মানুষ তাদের বাড়িঘর ছাড়তে বাধ্য হয়েছে।

ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন সতর্ক করে বলেছেন, জলবায়ু পরিবর্তন আমাদের অস্তিত্বের জন্য হুমকি হয়ে দাঁড়িয়েছে। এই বাস্তবতা অস্বীকার করার জন্য তিনি ডোনাল্ড ট্রাম্পকে অভিযুক্ত করেন। অন্যদিকে দাবানলের কারণ হিসেবে দুর্বল বন ব্যবস্থাপনাকে দায়ী করেছেন ট্রাম্প।

ক্যালিফোর্নিয়ায় গত মাসে শুরু হওয়া দাবানল এরইমধ্যে ৩২ লাখ একর অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে। ধ্বংস হয়ে গেছে প্রায় ৪ হাজার অবকাঠামো।

এদিকে ওরিগন ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা ১৬টি বড় দাবানলের সঙ্গে লড়াই করছে। সেখানকার ৪০ হাজার মানুষকে বাধ্যতামূলকভাবে এলাকা ছেড়ে চলে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। স্থানীয় জরুরি ব্যবস্থাপনা দফতর (ওইএম) জানিয়েছে, দাবানলে সেখানে এ পর্যন্ত ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। তবে মৃতের সংখ্যা আরও অনেক বাড়তে পারে বলে সতর্ক করেছেন রাজ্যটির কর্মকর্তারা।

ওরিগনের গভর্নর কেইট ব্রাউন বাসিন্দাদের দাবানল আক্রান্ত এলাকাগুলোর বাইরে চলে যাওয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন।

দাবানলের কারণে লোকজন ঘরবাড়ি ছেড়ে যাওয়ার পর কোনও কোনও এলাকায় লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গেছে। কেইট ব্রাউন বাসিন্দাদের নিরাপত্তার নিশ্চয়তা দিয়ে বলেছেন, পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ ও লুটপাট ঠেকাতে ওরিগন ন্যাশনাল গার্ড ও ওরিগন রাজ্য পুলিশকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

ওয়াশিংটন রাজ্যে দমকলকর্মীরা ১৫টি বড় দাবানলের সঙ্গে লড়াই করছেন। এই সপ্তাহের শুরুতে আগুনে সেখানে এক বছর বয়সী একটি শিশু মারা গেছে। সূত্র: রয়টার্স, টিআরটি ওয়ার্ল্ড।




খবরটি এখনই ছড়িয়ে দিন

এই বিভাগের আরো সংবাদ







Copyright © Bangla News 24 NY. 2020