1. sparkleit.bd@gmail.com : K. A. Rahim Sablu : K. A. Rahim Sablu
  2. diponnews76@gmail.com : Debabrata Dipon : Debabrata Dipon
  3. admin@banglanews24ny.com : Mahmudur : Mahmudur Rahman
  4. mahmudbx@gmail.com : Monwar Chaudhury : Monwar Chaudhury
সিলেটে বন্যাকবলিতদের চিকিৎসা দেবে ১৪০টি মেডিকেল টিম
শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ০৭:১১ অপরাহ্ন




সিলেটে বন্যাকবলিতদের চিকিৎসা দেবে ১৪০টি মেডিকেল টিম

স্টাফ রিপোর্ট::
    আপডেট : ১৯ মে ২০২২, ৫:৪৯:০৬ অপরাহ্ন

সিলেটে বন্যাকবলিত মানুষের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে ১৪০টি মেডিকেল টিম গঠন করা হয়েছে। এসব দলে চিকিৎসক ছাড়াও নার্সসহ স্বাস্থ্যসংশ্লিষ্ট অনেকেই আছেন। আজ বুধবার (১৯ মে) দুপুরে সিলেটের সিভিল সার্জন এস এম শাহরিয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে জেলার ১৩টি উপজেলার একাধিক বানভাসি মানুষ জানিয়েছেন, আট দিন ধরে বন্যা পরিস্থিতি চলায় অনেকে ডায়রিয়া, জ্বর, সর্দি ও চর্মরোগসহ পানিবাহিত নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। অথচ অনেকেই চিকিৎসা সেবা পাচ্ছেন না। এ অবস্থায় প্লাবিত এলাকার সবখানে স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করা প্রয়োজন।

সিভিল সার্জন কার্যালয় জানিয়েছে, জেলার বন্যাকবলিত এলাকায় সর্বমোট ৯৪ জন পানিবাহিত নানা রোগে আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এর মধ্যে ডায়রিয়ায় ৩৩ জন, শ্বাসতন্ত্রের সংক্রমণে ৫ জন এবং চর্মরোগে ৬ জন আক্রান্ত হয়েছেন। অন্যরা বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়েছে। একই সূত্রের তথ্য অনুযায়ী, জেলায় পানিতে ডুবে মারা গেছেন দুজন। তাঁরা হচ্ছেন কোম্পানীগঞ্জের পুটামারা গ্রামের মো. আসকন্দর আলী এবং সিলেট সদর উপজেলার রায়েরগাঁও গ্রামের রজাক আলী।

সিভিল সার্জন কার্যালয় আরও জানিয়েছে, জেলার ১৩টি উপজেলার ১০৩টি ইউনিয়নের মধ্যে ৬০টি ইউনিয়ন বন্যাকবলিত হয়েছে। এর হিসেবে উপজেলাগুলোর মধ্যে সিলেট সদরে ১০টি, দক্ষিণ সুরমায় ৮টি, বিশ্বনাথে ১১টি, ওসমানীনগরে ৯টি, বালাগঞ্জে ৭টি, ফেঞ্চুগঞ্জে ১০টি, গোলাপগঞ্জে ১৬টি, বিয়ানীবাজারে ১৬টি, জকিগঞ্জে ১০টি, কানাইঘাটে ১২টি, গোয়াইনঘাটে ১০টি, জৈন্তাপুরে ১১টি এবং কোম্পানীগঞ্জে ৭টি মেডিকেল টিম গঠিত হয়েছে। এর বাইরে জেলা সদরে ৩টি মেডিকেল টিম গঠন করা হয়েছে।

সিলেটের সিভিল সার্জন এসএম শাহরিয়ার বলেন, মেডিকেল টিম কাজ শুরু করেছে। প্লাবিত এলাকার সবখানেই যেন স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে, সে বিষয়টি নিশ্চিত করতে প্রতিটি মেডিকেল টিমকে নির্দেশনা দেওয়া আছে। এরপরও পুরো বিষয়টি যেন সুষ্ঠুভাবে করা যায়, এ জন্য সিভিল সার্জন কার্যালয় তদারকি করছে। এককথায় চিকিৎসাসেবা যেন সবাই পান, সেটাই নিশ্চিত করা হবে।

এর আগে গত আট দিন আগে থেকে ভারতের উজান থেকে পাহাড়ি ঢল নামছে। পাশাপাশি সিলেটে ভারী বৃষ্টিও হচ্ছে। এতে নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় জেলায় বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। জেলার প্রধান দুটি নদী সুরমা ও কুশিয়ারাসহ অন্যান্য নদ-নদীর পানি উপচে একের পর এক এলাকা প্লাবিত হচ্ছে। ডুবে গেছে ফসলের খেত, ভেসে গেছে পুকুরের মাছ। অসংখ্য বাসাবাড়িতেও পানি ঢুকেছে।

গতকাল বুধবার রাতে কয়েক দফা ভারী বৃষ্টির পর আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টার পর থেকে মুষলধারে বৃষ্টি শুরু হয়েছে। ফলে বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি হচ্ছে।




খবরটি এখনই ছড়িয়ে দিন

এই বিভাগের আরো সংবাদ







Copyright © Bangla News 24 NY. 2020