1. sparkleit.bd@gmail.com : K. A. Rahim Sablu : K. A. Rahim Sablu
  2. diponnews76@gmail.com : Debabrata Dipon : Debabrata Dipon
  3. admin@banglanews24ny.com : Mahmudur : Mahmudur Rahman
  4. mahmudbx@gmail.com : Monwar Chaudhury : Monwar Chaudhury
সুনামগঞ্জে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ১১ সদস্যের অনাস্থা
রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ০৩:৫০ পূর্বাহ্ন




সুনামগঞ্জে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ১১ সদস্যের অনাস্থা

শান্তিগঞ্জ প্রতিনিধি:
    আপডেট : ৩০ অক্টোবর ২০২২, ৭:৪১:০৪ অপরাহ্ন

সুনামগঞ্জের শান্তিগঞ্জ উপজেলার পূর্ব পাগলা ইউনিয়নের ‘চিকারকান্দি আগার বাড়ির রাস্তা হতে বেড়িবাঁধের মুখ পর্যন্ত মাটি ভরাট করে রাস্তা নির্মাণ’ প্রকল্পের জন্য ২০২১-২০২২ অর্থ বছরে অতি দরিদ্রদের জন্য কর্মসংস্থান কর্মসূচির আওতায় (২য় পর্যায়) ৫ লক্ষ ১২ হাজার টাকার বরাদ্দ আসে। ৬নং প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটি (পিআইসি) ধারদেনা করে কাজটি সম্পন্নও করায়।

কিন্তু বরাদ্দের অর্থ যখন অনুমোদিত হয়ে আসে তখন টাকা উত্তোলন করতে গিয়ে বোকা বনে যান প্রকল্পের সভাপতি ১, ২ ও ৩ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত আসনের মহিলা সদস্য কোহিনূর বেগম। প্রকল্পের ওই টাকা প্রভাব খাটিয়ে ইতোপূর্বে উত্তোলন করে নিয়েছেন তাদেরই চেয়ারম্যান (পূর্ব পাগলা ইউনিয়ন পরিষদ) মাসুক মিয়া। এছাড়াও অন্যান্য সব বরাদ্দের অর্থ ইচ্ছেমতো খরচ করা, পরিষদের সকল সদস্যদের সাথে অসদাচরণ, বিভিন্ন অনিয়ম সম্পর্কে পরিষদের সদস্যগণ জানতে চাইলে তাদের সাথে তর্জন-গর্জন, অশালীন ভাষায় গালিগালাজ, এমনকি বেশি কথা বললে ছিংলা (বাঁশের ছোট লাটিকে স্থানীয় ভাষায় চিংলা বলা হয়) বা ‘গল্লা’ দিয়ে পিটিয়ে পরিষদ থেকে বের করে দেওয়ার হুমকির মতো অত্যন্ত গুরুতর অভিযোগ উঠেছে বর্তমান এই চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে। এজন্য তারা ইউনিয়নের এ চেয়ারম্যানের প্রতি অনাস্থা প্রকাশ করেন।

বৃহস্পতিবার বিকাল আড়াইটায় শান্তিগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আনোয়ার উজ্ জামানের কাছে ইউনিয়ন পরিষদের ১১জন পুরুষ ও নারী সদস্যদের সিল-স্বাক্ষরিত অভিযোগ ও অনাস্থাপত্র জমা দেন। অভিযোগপত্রে অবগতির জন্য পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান, সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসক ও সুনামগঞ্জের স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক বরাবরে অনুলিপি পাঠানো হয়।

পরে একই দিনে শান্তিগঞ্জ প্রেসক্লাবের অস্থায়ী কার্যালয় মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে উপস্থিত হয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন অভিযোগকারী ১১ ইউপি সদস্য-সদস্যাগণ। এসময় সাংবাদিকদের সামনে তাদের পক্ষ থেকে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ইউপির ২নং ওয়ার্ডের সদস্য ও প্যানেল চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন। বক্তব্য রাখেন ১, ২ ও ৩ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত আসনের মহিলা সদস্য কোহিনূর বেগম, ৪, ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত আসনের মহিলা সদস্য ছুরতুন নেছা ও ৩ নং ওয়ার্ডের সদস্য আমির আলী।

পূর্ব পাগলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাসুক মিয়া তার বিরুদ্ধে আনিত সকল অভিযোগে অস্বীকার করে বলেন, আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র হচ্ছে। যারা অভিযোগ করেছেন তারা বিভিন্ন সময় মানুষের কাছ থেকে বিভিন্ন প্রকল্প দেখিয়ে টাকা নিলে আমি বাঁধা দেই। এতে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে আমার বিরুদ্ধে জোট বেঁধেছে। প্রকল্পের টাকা উত্তোলনের ব্যাপারে তিনি বলেন, আমি এ টাকার ব্যাপারে কোনো কিছুই জানি না। পিআইসির সদস্যরাই টাকা তুলেছেন। অশালীন কথা-বার্তার বিষয়টিও তিনি অস্বীকার করেন।

অভিযোগের বিষয়ে সত্যতা নিশ্চিত করে শান্তিগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আনোয়ার উজ্ জামান বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। এখন কাজের ধারাবাহিতা বজায় রেখে তদন্ত করা হবে। যদি অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায় তাহলে অভিযুক্ত চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।




খবরটি এখনই ছড়িয়ে দিন

এই বিভাগের আরো সংবাদ







Copyright © Bangla News 24 NY. 2020