1. sparkleit.bd@gmail.com : K. A. Rahim Sablu : K. A. Rahim Sablu
  2. diponnews76@gmail.com : Debabrata Dipon : Debabrata Dipon
  3. admin@banglanews24ny.com : Mahmudur : Mahmudur Rahman
  4. mahmudbx@gmail.com : Monwar Chaudhury : Monwar Chaudhury
সুরমা নদীতে বাড়ছে পানি, ভাঙনশঙ্কায় স্থানীয়রা
শনিবার, ২১ মে ২০২২, ০৬:২৬ পূর্বাহ্ন




সুরমা নদীতে বাড়ছে পানি, ভাঙনশঙ্কায় স্থানীয়রা

স্টাফ রিপোর্ট::
    আপডেট : ১৩ মে ২০২২, ১১:৪১:০৬ অপরাহ্ন

সিলেট অঞ্চলে প্রবল বর্ষণে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। সুরমা নদীতে পানি বেড়ে সিলেট শহরতলীর টুকের বাজার এলাকার পীরপুরে দুপুরে নদী ভাঙন শুরু হয়েছে। ২০০ বছরের পুরনো বসতবাড়িঘর হুমকির মুখে পড়েছে।

এদিকে, এলাকাবাসী লল্ডনে অবস্থানরত সিলেট সিটি করপোরেশনের (সিসিক) মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর সঙ্গে যোগাযোগ করে সাহায্য চাইলে, তিনি সিসিকের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের নির্দেশনা দেন। দ্রুত বাঁশ পাইলিং করে ইট, বালির বস্তা ফেলে ভাঙন ঠেকানোর চেষ্টা চলাচ্ছেন তারা। টানা বৃষ্টিতে সুরমা নদীর পানি বৃদ্ধিতে এলাকাটি হুমকির মুখে পড়েছে।

সিসিক নির্বাহী প্রকৌশলী রাজি উদ্দিন খাঁন বলেন, ‘নদী ভাঙনের খবর শুনে মেয়রের নির্দেশনা মোতাবেক এখনও পর্যন্ত ১ হাজার বস্তা বালু, পর্যাপ্ত পরিমাণে ইট, ইটের খোয়া এবং বাঁশ সরবরাহ করা হয়েছে। দৈনিক মজুরি ভিত্তিতে নিয়োজিত প্রায় ৫০ জন শ্রমিক কাজ করছেন। নদীতে এখন প্রচুর পানি। জায়গাটি মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ। কিন্তু সাময়িক প্রটেকশনের জন্য যা যা প্রয়োজন, সবটুকুই করা হচ্ছে।’

এসময় উপস্থিত ছিলেন সিসিকের পরিবহন শাখা প্রধান তানভীর আহমদ তামিম, মেয়রের ব্যক্তিগত সহকারী মুহিবুল ইসলাম ইমন ও সিসিকের সংরক্ষণ শাখার কর্মকর্তা কর্মচারীরা।

এদিকে, বিশেষ করে হাওরাঞ্চলে ডুবে যাওয়া ধান ও গোখাদ্য খড় নিয়ে বিপাকে পড়েছেন চাষিরা। কেটে আনা খড় ও সামান্য ধান শুকাতে পারছেন না তারা। দেরিতে যেসব এলাকায় ধান পেকেছে, সেই ধান নিয়ে তারা দুশ্চিন্তায়।

সিলেট আবহাওয়া অফিসের সিনিয়র আবহাওয়াবিদ সাঈদ আহমদ চৌধুরী জানান, শুক্রবার (১৩ মে) রাতেও প্রচুর বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। গত ৩ দিনে ২৬০ মিলিমিটারেরও বেশি বৃষ্টিপাত হয়েছে। রবিবার (১৫ মে) বৃষ্টি কিছুটা কমবে। আবার পরেরদিন সোমবার প্রচুর বৃষ্টি হবে সিলেট অঞ্চলে। আগামী ২৫ মে থেকে সিলেটে বৃষ্টি কমার সম্ভাবনা রয়েছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড জানায়, সুরমা, কুশিয়ারা, যাদুকাটা, বৌলাইসহ বিভিন্ন নদীর পানি দ্রুত বাড়ছে। সিলেট নগরীসহ বিভিন্ন স্থানে জলাবদ্ধতা তীব্র হচ্ছে। স্থানে স্থানে জমে থাকা পানি ঢুকে বাসাবাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে দুর্ভোগ বেড়েছে। দক্ষিণ সুরমা উপজেলার লাউয়াই, বঙ্গবীর রোডসহ বিভিন্ন এলাকায় জলজট লেগে আছে। অনেক দোকানে পানি উঠে গেছে। জলাবদ্ধতার কারণে পথচারীদেরও দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। নগরীর ২৫ ও ২৬ নম্বর ওয়ার্ডে দুর্ভোগ মারত্মক।

সিলেটের বিভিন্ন গ্রামের কৃষকরা বলেন, মাড়াই করে রাখা ভেজা ধান বৃষ্টির কারণে শুকাতে পারছেন না তারা। খড়ও সব ভিজে নষ্ট হওয়ার উপক্রম। পচা গন্ধ বের হচ্ছে। ধান অপুষ্ট থাকায় মিলে ভাঙানো যাচ্ছে না। ভাঙাতে দিলে চাল গুঁড়া হয়ে যায়।




খবরটি এখনই ছড়িয়ে দিন

এই বিভাগের আরো সংবাদ







Copyright © Bangla News 24 NY. 2020