1. sparkleit.bd@gmail.com : K. A. Rahim Sablu : K. A. Rahim Sablu
  2. banglanews24ny@gmail.com : App Bot : App Bot
  3. diponnews76@gmail.com : Debabrata Dipon : Debabrata Dipon
  4. admin@banglanews24ny.com : Mahmudur : Mahmudur Rahman
  5. islam_rooney@ymail.com : Ashraful Islam : Ashraful Islam
  6. rumelali10@gmail.com : Rumel : Rumel Ali
  7. Tipu.net@gmail.com : Ariful Islam : Ariful Islam
সাম্প্রদায়িকতার উত্থান : সিলেটে অসাম্প্রদায়িকদের ক্ষোভ
রবিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ১০:১৩ পূর্বাহ্ন




সাম্প্রদায়িকতার উত্থান : সিলেটে অসাম্প্রদায়িকদের ক্ষোভ

অজয় বৈদ্য অন্তর
    আপডেট : ১৮ অক্টোবর ২০২১, ১২:৩২:৪৫ অপরাহ্ন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

কুমিল্লায় পূজামন্ডপে কোরআন পাওয়াকে কেন্দ্র করে সিলেটসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে মন্দির ও মন্ডবে হামলা ভাঙচুরের ঘটনায় উদ্বিগ্ন অসাম্প্রদায়িক চেতনায় বিশ্বাসী নাগরিকবৃন্দ। ধর্মীয় বৃহৎ উৎসব পালনকালে অনাকাক্সিক্ষত ঘটনার সূত্রপাত আর ক্ষোভ বিক্ষোভের ঘটনায় মর্মাহত হয়েছেন সকল সম্প্রদায়ের মানুষ। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশে দুর্গোৎসবে এই ঘটনার প্রতিবাদে উত্তাল হয়েছে সারাদেশ। সাম্প্রদায়িক এই অপশক্তিকে চিহ্নিত করে দ্রুত গ্রেফতার এবং বিচারের দাবিতে প্রতিদিন পালিত হচ্ছে বিভিন্ন কর্মসূচি।

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সর্ববৃহৎ ধর্মীয় অনুষ্ঠান শারদীয় দুর্গাপূজা ১২ অক্টোবর থেকে শুরু হয়ে ১৫ অক্টোবর শুক্রবার বিজয়া দশমীর মধ্য দিয়ে সম্পন্ন হয়। শুরুর দিকে পূজোতে উচ্ছ্বাস থাকলেও শেষ দিকে যেন ম্লান হয়ে যায় প্রাণের এই উৎসব। গেল দু’বছর করোনার কারণে অনুষ্ঠিত হয়নি দুর্গাপূজো। ফলে শুরু থেকেই এবারের পূজোকে ঘিরে উৎসাহ-উদ্দীপনা থাকলেও অশুভ শক্তির কারণে সেই আনন্দ উচ্ছ্বাসে ভাটা পড়ে। শুধু তাই নয় জনমনে নেমে আসে অজানা আতঙ্ক।

১৩ অক্টোবর কুমিল্লার নালুয়াদিঘীর পাড়ের অস্থায়ী পুজোমন্ডপে মুসলমানদের পবিত্র ধর্মগ্রন্থ কোরআন শরীফ রাখার ঘটনাকে কেন্দ্র করে শুরু হয় সহিংসতা। শারদীয় পূজোর ২য় দিনে সংঘটিত এই ঘটনা মুহুর্তেই ছড়িয়ে পড়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে। ঘটনার রেশ থাকে দুর্গাপূজোর শেষ দিন পর্যন্ত। অর্থ্যাৎ বিজয়া দশমীর দিনেও কিছু কিছু জায়গায় থেমে থাকেনি সহিংসতা। চোখের জলে সম্পন্ন হয় প্রতিমা বিসর্জন। ১৫ অক্টোবর প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়েও শেষ হয়নি সৃষ্ট তাণ্ডবের। দেশের বিভিন্ন স্থানে উগ্র সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী প্রতিমা বিসর্জনের পরদিন ১৬ অক্টোবর ফেনী শহরে তান্ডব চালায়।

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ হামলার ঘটনায় আহত হয়েছে দেড় শতাধিক। কিশোরী ধর্ষনের ঘটনার কথা শোনা গেলেও পরবর্তীতে তা গুজব বলে গণমাধ্যমে বিবৃতি পাঠানো হয়েছে।
তবে, ধর্ষিতার পরিবারের অনুরোধে বিষয়টি গণমাধ্যমে বিবৃতি আকারে পাঠানো হয়েছে-এমন তথ্যও জানিয়েছেন পূজা উদযাপন পরিষদের এক কেন্দ্রীয় নেতা। দেশের সুশীল সমাজ এই ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে বিবৃতি দিয়েছেন গণমাধ্যমে। শনিবার থেকে বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও প্রগতিশীল রাজনৈতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে সারাদেশে চলতে থাকে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচী। এসব মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচী থেকে অপকর্মে জড়িতদের দৃষ্ঠান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে দেশের চিরায়ত পারস্পরিক ও সৌহার্দ্যমূলক সহাবস্থান বজায় রাখার আহবান জানানো হয়।

এদিকে কুমিল্লার সাম্প্রদায়িক ঘটনার আঁচড় পড়ে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির তীর্থভূমি সিলেটেও। কুমিল্লার ঘটনাকে কেন্দ্র করে সিলেট নগরীর দুটি মন্দিরে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। তাছাড়া সিলেটের কুলাউড়া, কমলগঞ্জ,জকিগঞ্জসহ আরো কয়েকটি স্থানে মন্দির ভাঙচুর ও হামলার ঘটনা ঘটে। নগরীর আখালিয়ার একটি মন্দিরে হামলার ঘটনায় রোববার (১৭ অক্টোবর) ১২ জনকে গ্রেফতার করেছে এসএমপির জালালাবাদ থানা। জালালাবাদ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গ্রেফতারের বিষয়টি শ্যামল সিলেটকে নিশ্চিত করেছেন।

পবিত্র নগরী সিলেটে এই হামলার ঘটনায় বাকরুদ্ধ সিলেটের সুশীল সমাজ। তাদের মতে,সিলেটের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির ঐতিহ্য দীর্ঘদিনের। ধর্মীয় প্রচারে এই অঞ্চলে যেভাবে ওলীকুল শিরোমনি হযরত শাহজালাল (র:) যেরকম ইসলামের পতাকা উড়িয়েছিলেন একইভাবে হিন্দু ধর্মের প্রবর্তক শ্রী কৃষ্ণ চৈতন্য মহাপ্রভু, শ্রীবাস পন্ডিত, বৈষ্ণবাচার্য্য শ্রী মৎ অদৈত্য মহাপ্রভূও স্ব স্ব ধর্মের সুললিত বাণী প্রচারের মধ্য দিয়ে অন্ধকারাচ্ছন্ন সমাজকে আলোর পথ দেখিয়ে গেছেন। সেই থেকে সিলেটের মানুষ অতিথিবৎসল এবং ধর্মীয় ভাবে পারস্পরিক শান্তিপূর্ণ একটি সহাবস্থানের মধ্যে বাস করে আসছে। কিন্তু কুমিল্লার ঘটনাকে কেন্দ্র করে সিলেট নগরীসহ সিলেটের আরো কয়েকটি স্থানে হামলার ঘটনায় সকলেই উদ্বিগ্ন ও উৎকুণ্ঠিত। শনিবার থেকে সিলেটে শুরু হওয়া মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশে তাঁরা জানিয়েছেন উৎকুণ্ঠার কথা। একই সাথে মুক্তিযুদ্ধের বাংলাদেশে এমন দৃশ্য বেমানান উল্লেখ করে সাম্প্রদায়িক অপশক্তির হাত থেকে দেশ ও জাতিকে রক্ষার জন্য সকলকে এগিয়ে আসার আহবান জানান।

কুমিল্লার নালিয়ার দিঘীর একটি অস্থায়ী পূজোমন্ডপে পবিত্র ধর্মগ্রন্থ কোরআন শরীফ রাখার ঘটনায় সারাদেশে সৃষ্ট সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছে বাংলাদেশ হিন্দু পরিষদ সিলেট জেলা শাখা। মহানগর হিন্দু পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ডাঃ রনজিত কুমার রায়ের পরিচালনায় বিক্ষোভ কর্মসূচি ও মানববন্ধনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ হিন্দু পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সংগ্রামী সহ সভাপতি ও সিলেট জেলা আহবায়ক দীপক রায় দীপু। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক তপন মিত্র, কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক প্রবাল দেবনাথ অপু, কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট বিকাশ রঞ্জন অধিকারী,সিলেট জেলা হিন্দু পরিষদের সাধারণ সম্পাদক কার্তিক পাল, সাংগঠনিক সম্পাদক দীপন দাস, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক বিষু নাথ, সিলেট মহানগর হিন্দু পরিষদের সভাপতি এডভোকেট নির্মলেন্দু চৌধুরী পান্না নির্বাহী সভাপতি বীর মুক্তিযুদ্ধা নিবারন চন্দ্র দাসসহ মহিলা, যুব ও ছাত্র পরিষদ নেতৃবৃন্দ।

একই ঘটনায় আজ সোমবার (১৮ অক্টোবর) সিলেটে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশের ডাক দিয়েছে সিলেটের পৃথক আরো দুটি সংগঠন। বাম গণতান্ত্রিক জোট এবং আন্তর্জাতিক ভাবনামৃত সংঘের (ইসকন) ডাকে পৃথক সময়ে এই দুটি কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হবে।




খবরটি এখনই ছড়িয়ে দিন

এই বিভাগের আরো সংবাদ







Copyright © Bangla News 24 NY. 2020